সহশিক্ষা কার্যক্রম (স্কাউট) ক্যামব্রিয়ানের সকল শিক্ষার্থী স্কাউটের সদস্য

ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের জন্য প্রাইমারি শাখায় কাব, মাধ্যমিক শাখায় স্কাউটিং ও উচ্চমাধ্যমিক শাখায় রোভারিং কার্যক্রম চালু রয়েছে। এ প্রতিষ্ঠানের সকল শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা স্কাউট আন্দোলনের সাথে সম্পৃক্ত রয়েছে। শিক্ষার্থীদেরকে আত্মনির্ভরশীল, চরিত্রবান, যোগ্য ও দেশ প্রেমিক নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে স্কাউটিং একটি গুরুত্বপূর্ণ সহশিক্ষা কার্যক্রম। ক্যামব্রিয়ানের শিক্ষার্থীরা স্কাউটিং এ ইতোমধ্যে জাম্বুরি, মুড, জাতীয় ক্যাম্প, ডে ক্যাম্প ও আন্তর্জাতিক ক্যাম্পে অংশগ্রহণ করেছে। এছাড়াও শিক্ষার্থীরা দেশ বিদেশের বিভিন্ন স্কাউটিং প্রশিক্ষণ ও প্রতিযোগিতামূলক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে প্রতিষ্ঠান ও দেশের সুনাম বৃদ্ধি করেছে। ইতোমধ্যে ৩ জন শিক্ষার্থী শাপলা অ্যাওয়র্ড অর্জন করেছে। ক্যামব্রিয়ানের স্কাউট সদস্যরা শহিদ মিনারে, হজ্জ ক্যাম্পে, জাতীয় স্টেডিয়ামের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে দক্ষতার সাথে শৃঙ্খলার দায়িত্ব পালন করেছে। আত্মমর্যাদায় বিশ্বাসী, জাতি ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে স্কাউট সকলের বন্ধু। ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজ শুধু বাংলাদেশে নয় সারা বিশ্বের একমাত্র প্রতিষ্ঠান যার প্রায় ৬ হাজার শিক্ষার্থী ও শিক্ষকমন্ডলী সরাসরি স্কাউটিং কার্যক্রমের সাথে সম্পৃক্ত

ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের স্কাউটে সাফল্য অর্জন:

ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা স্কাউটে দৃষ্টি নন্দন সাফল্য অর্জন করেছে। এর আগের বছরগুলোর সফলতা বর্তমান সময় পর্যন্ত অব্যাহত রয়েছে।

বিদায়ী বছরে চৌকস সংগঠক হিসেবে বাংলাদেশ স্কাউট এর সভাপতি অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন বিএসবি ক্যামব্রিয়ান এডুকেশন গ্রুপের চেয়্যারম্যান লায়ন এম.কে. বাশার পিএমজেএফ।

২০১৭ সালে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে পাঁচটি ক্যাটাগরিতে সম্মাননা স্বারক লাভ করে। এগুলো হচ্ছে শ্রেষ্ঠ স্কাউট গ্রুপ- ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজ। শ্রেষ্ঠ স্কাউট শিক্ষক মো. তৌকির আহমেদ, শ্রেষ্ঠ গার্লস-ইন-স্কাউট শিক্ষক সীমা আক্তার, শ্রেষ্ঠ রোভার স্কাউট শিক্ষক নাসিমা আক্তার এবং শ্রেষ্ঠ রোভার স্কাউট মো. ফয়সাল আহমেদ।

২০১৭-১৮ সালে স্কাউট এর সর্বোচ্চ খেতাব ‘শাপলা কাব অ্যাওয়ার্ড’ পদক অর্জন করেছে মার্জিয়া সিদ্দিকা অনন্যা, বিজলী আক্তার, সৈয়দা নাঈমা সুলতানা, আইদীদ-আল আযহা।

২০১৭-১৮ সালে স্কাউট এর সর্বোচ্চ অ্যাওয়ার্ড ‘প্রেসিডেন্টস স্কাউট অ্যাওয়ার্ড’- এর লিখিত পরীক্ষায় ক্যামব্রিয়ানের স্কুল অ্যান্ড কলেজের উত্তীর্ণ হয় চার জন। এরা হলো- ইসরাত জাহান ইমা, সৈয়দা সায়মা সুলতানা, মো. নাহিদ হাসান রনি, মো. রেজুয়ান ইসলাম রাকিব।

স্কাউট আন্তর্জাতিক প্রোগ্রামে ক্যামব্রিয়ানের ছাত্র-ছাত্রীরা অংশগ্রহণ করে দেশের জন্য সুনাম বয়ে এনেছে। সুইডেনে ২২তম বিশ্ব স্কাউট জাম্বুরী, জার্মানে ৩০তম এশিয়া অলিম্পিক স্কাউট জাম্বুরী, ১৮তম আন্তর্জাতিক অ্যাডভেঞ্জার নাম এবং বাংলাদেশ-ভারত যৌথ স্কাউট ফ্রেন্ডশীপ ক্যাম্পে ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ ছিল প্রসংশনীয়।

এছাড়া গত বছর ২০১৭ সালে জাতীয় রোভার মুট গোপালগঞ্জ, স্কাউট সমাবেশ গাজীপুর, কাব ক্যাম্বুরী উত্তরা, অষ্টাদশ আঞ্চলিক রোভার মুট গাজীপুর এ ক্যামব্রিয়ানের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে।

উল্লেখ, স্কাউটের সকল জাতীয় প্রোগ্রামে ক্যামব্রিয়ানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ ছিলো উল্লেখ করার মতো।

আঞ্চলিক প্রতিভা অঙ্কন প্রতিযোগীতায় কাব স্কাউট শাখায় ফারিহা ইসলাম জোলী, আঞ্চলিক গানে তৃতীয়, বিজলী আক্তার আঞ্চলিক গানে প্রথম, আইদীদ আল আযহা চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করে।

স্কাউট শাখায় স্নেহা ইসলাম আঞ্চলিক গানে প্রথম এবং ইফাতুল ইসলাম চিত্রাঙ্কনে প্রথম স্থান অর্জন করে। ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজ ২০১২ সাল থেকে স্কাউটের বিভিন্ন প্রোগ্রাম সাফল্যের সাথে অংশগ্রহণ করে আসছে।

ফটো গ্যালারি